আলু পটল ভোগ চাল মুড়িঘোন্ট । বাঙালির সেরা নিরামিষ রান্না

আপনারা তো মুড়িঘোন্ট মাছের মাথা দিয়ে খেয়েছেন। কখনও কি নিরামিষ রান্না করে বানিয়েছেন। আজ আমি খুব অল্প সময়ে কি ভাবে আলু পটল ভোগ চাল দিয়ে নিরামিষ মুড়িঘোন্ট বানায় সেটা বলবো।

দেখে নেয়া যাক আলু পটল ভোগ চালের মুড়িঘোন্ট বানাতে আমাদের কি কি লাগছে।

উপকরণ: পটল 250 গ্রাম, ভোগ চাল 200 গ্রাম, আলু 250 গ্রাম, গোটা গরম মসলা, হলুদের গুঁড়া, জীরা গুড়ো, আদা, গোটা জীরা এক চামুচ, ঘী, নুন, চিনি , গরম মসলা গুড়ো, কাচা লঙ্কা আর তেজপাতা।

প্রণালী: প্রথমে কড়াইতে সর্শ্যার তেল দিলাম। সর্শ্যার তেল গরম হলে পটল গুলো দিয়ে সামান্য নুন , হলুদ দিয়ে ঢাকা দিয়ে ভাজা ভাজা করে একটি পাত্রে নামাতে হবে।

তারপর আলু গুলো একেই ভাবে সামান্য নুন হলুদ দিয়ে ভাজা ভাজা করে একটি পাত্রে নামিয়ে নিতে হবে।

ওই টেলেটেই গোটা গরম মাসলা, তেজপাতা, গোটা জীরা ফরণ দিয়ে ভোগ চাল টা দিয়ে দিতে হবে। ( ভোগ চাল টা 20 মিনিট জলে ভিজিয়ে নিয়েছিলাম)

এবার ভোগ চাল টা সানান্য নুন, হলুদের গুড়ো দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজা ভাজা করতে হবে। তারপর আদা বাটা, জিরার গুঁড়া দিয়ে আরো কিছুক্ষন ভাজা ভাজা করে নিতে হবে।

এবার পরিমান মতো জল দিয়ে ঢাকনা দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে। তারপর ঢাকনা খুলে জল টা ফুটে উঠলে ভাজা আলু, পটল গুলো দিয়ে ভালো ভাবে নাড়া চারা করে আবারও ঢাকনা দিয়ে 10 মিনিট কম আঁচে রান্না হতে দিন।

এবার ঢাকনা খুলে চালটা সেদ্ধ হয়ে আলু , পটলের সাথে গায়ে  মাখা মাখা হলে এক চামুচ ঘী , সামান্য চিনি, এক চামুচ গরম মসলা গুড়ো এবং দুটো কাঁচা লঙ্কা দিয়ে আবারও ভালো ভাবে নাড়া চারা করে গ্যাস অফ করে ঢাকনা দিয়ে 5 মিনিট রেখে দিন।

এবার একটি পাত্রে সাজিয়ে গরম ভাতের সাথে পরিবেশন করুন।

আমি আলু পটল ভোগ চালের রান্না প্রণালীর ভিডিও তা নীচে দিলাম। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। 

নিরেমিশদের জন্য এক দারুন রেসিপি। সুস্থ থাকুন ভালো থাকুন। নমস্কার।

Leave a Reply

Close Menu
×
×

Cart

%d bloggers like this: